অল্প পুঁজিতে ১০ টি লাভজনক ব্যবসার আইডিয়া

অল্প পুজিতে ১০ লাভজনক ব্যবসার আইডিয়া


অল্প টাকায়ও ব্যবসা করা যায়। বিষয়টা শুনতেই আপনাদের হয়তো কেমন একটা লাগছে। কিন্তু এই কথাটা আসলেই সত্যি অল্প টাকায় ব্যবসা করার মাধ্যমে অনেকে তাদের ভাগ্য পরিবর্তন করে ফেলেছে বর্তমানে। জীবনে সফল একজন ব্যবসায়ী হওয়ার জন্য সবার স্বপ্ন থাকে।


কিন্তু প্রয়োজনীয় মূলধন বা টাকার অভাবে তারা তাদের সেই স্বপ্ন সত্যি করতে পারেননা।আপনি যে ব্যবসায় করুন না কেন অবশ্যই আপনাকে সেই ব্যবসা করার জন্য একটি নির্দিষ্ট মূলধনের দরকার হবে। আর সাধারনত এই ধারণাটা আমাদের সবার মনের মধ্যেই থাকে। তাই অনেক সময় আমাদের ক্ষেত্রে এসব করা আর হয়ে ওঠে না।


আমাদের স্বপ্ন স্বপ্নই থেকে যায় স্বপ্ন পূরণ করতে আমরা সক্ষম হই না। তবে ব্যবসা করতে যে অনেক টাকার প্রয়োজন হয় এই ধারণাটা কিন্তু সঠিক নয়। 


সাধারণত আমরা আজকে এসব মানুষের কিছু ভুল ধারণার অবসান ঘটিয়ে আপনাদের সাথে এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আলোচনা করব কিভাবে অল্প পুঁজিতে ব্যবসা করা যায়। তাহলে চলুন দেরী না করে জেনে নেওয়া যাক অল্প পুঁজিতে লাভজনক ব্যবসা সম্পর্কে।তো তার আগে আমাদেরকে আগে জানতে হবে ব্যবসা কি?


ব্যবসা কি 


সাধারণত মুনাফা লাভের উদ্দেশ্যে নিজস্ব উৎপাদিত অথবা অন্য উৎপাদকের থেকে কেনা পণ্য অথবা পরিষেবার ক্রয়-বিক্রয় সমাজবদ্ধ মানুষের অভাব মোচন করে থাকে তাকেই সাধারণত ব্যবসা বলা হয়ে থাকে। ব্যবসার অনেক ধরনের রয়েছে। 


অল্প পুজিতে লাভজনক ব্যবসা কি 


ব্যবসা করতে গেলে নিদৃষ্ট মূলধনের দরকার পড়ে। মূলধন ছাড়া কোনভাবেই কেউ ব্যবসা করতে সক্ষম হয় না। বড় ব্যবসা করার জন্য মূলধন লাগে। ঠিক তেমনি ছোট ব্যবসা আপনি ও মূলধনের মাধ্যমেই করতে পারবেন। 


সহজভাবে বলতে গেলে, অল্প পুঁজি বা মূলধন এর মাধ্যমে যে ব্যবসা করা হয়ে থাকে এবং ওই ব্যবসা করার মাধ্যমে কাঙ্খিত পরিমাণে লাভ করা সম্ভব তাকেই বলা হয়ে থাকে অল্প পুঁজিতে লাভজনক ব্যবসা। তাহলে চলুন দেরী না করে জেনে নেয়া যাক অল্প পুজিতে লাভজনক ব্যবসার কয়েকটি আইডিয়াঃ



অল্প পুজিতে লাভজনক ব্যবসার আইডিয়া 



১.কফি শপের ব্যবসা করতে পারেন 


কফি আমাদের অনেকের কাছে জনপ্রিয় একটি পানিয়।আমরা যখন কারো সাথে দেখা করতে যাই তখনই আমাদের কফি খেতে মন বলে।তাছাড়া আমরা কমবেশি সকলেই কফি পছন্দ করে থাকি।তাহারা আমরা যখন কফিশপে কফি খাই তখন সেটা আরো মজাদার হয়। 


কফি যেমন মজাদার একটি পানীয় তেমনি এর রয়েছে অসাধারণ সব উপকারিতাও।কফি পান করলে নিমেষে দূর হয়ে যায় শরীরের ক্লান্তি তাই কর্মজীবী মানুষের কফি অনেক পছন্দ করে থাকেন। তাই আপনি যদি আমাদের দেশে ভালো একটি জায়গায় একটি কফি শপের দোকান দিতে পারেন তাহলে আপনি এখানে অল্প টাকা মূলধনের মাধ্যমে ভালো আয় করতে পারবেন। 


কফি শপের ব্যবসা খুবই অল্প পুজিতে আপনি করতে পারবেন। তাছাড়া এই ধরনের ব্যবসায় রিক্স খুব কম।এই ব্যবসাটি মূলত  অল্প টাকায় লাভজনক ব্যবসার মধ্যে একটি। 


২.পোশাক বিক্রির ব্যবসা 


পোশাক বিক্রি করার এই ব্যবসাটি হতে পারে আপনার অল্প পুঁজির মধ্যে আরেকটি ভালো ব্যবসা। বর্তমান সময়ে অনেকে রয়েছে যারা ঘরে বসেই বিভিন্ন ধরনের শাট প্যান্ট পাঞ্জাবি থ্রি পিস সহ আরো অন্যান্য ধরনের সামগ্রী বিক্রি করে থাকেন। আর এর ফলে তাঁরা সবচেয়ে বড়জোর সুবিধাটি পান সেটা হচ্ছে তারা ঘরে বসেই সব ধরনের পণ্য পেয়ে যাচ্ছে।



আর এর মধ্যে যদি কিছু পোষাক কাস্টমাইজ করে খেলা চাই তাহলে এর চাহিদা আরো অনেকাংশে বেড়ে যাবে।বর্তমানে অনেকে আছেন খেলাধুলার জন্য বা বন্ধুবান্ধবরা এসে ম্যাচিং পোশাক সান যাত্রা অন্যান্য বিভিন্ন ধরনের শপিংমলে খুঁজে পান না।


সেই ক্ষেত্রে সেই ম্যাচিং পোশাকের কাজটি আপনি তাদের কাছ থেকে নিতে পারেন।এর মাধ্যমে আপনার ব্যবসায়ী ভালো পরিমাণে লাভ করা সম্ভব। আপনি চাইলে একালদি বাসায় বসে খুব সহজেই করতে পারেন তাই এখানে তেমন বেশী কিছুর প্রয়োজন হয় না। 


৩.স্ট্রীট ফুড এর ব্যবসা করতে পারেন 


বাংলাদেশের মত জনবহুল পূর্ণ একটি দেশে স্ট্রিটফুড এর ব্যবসা হতে পারে একটি সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা। বর্তমানে আমাদের দেশের অনেক মানুষ রয়েছে যারা বড় বড় রেস্টুরেন্টে গিয়ে খাবার খাওয়ার মতো আর্থিক অবস্থা থাকে না। তাই তারা অনেকে স্ট্রিটফুড রেস্টুরেন্টে যেয়ে থাকেন। 


তাই আপনি যদি চান অল্প টাকার মধ্যে একটি স্টেট ফুডের দোকান দিতে পারেন। তবে আপনি এই ব্যবসা করার আগে অবশ্যই একটি কথা মাথায় রাখবেন সেটি হচ্ছে এই ক্ষেত্রে আপনার খাবারের মান অবশ্যই ভালো হতে হবে। 


৪.চায়ের দোকানের ব্যবসা 


চা পছন্দ করেন না এমন লোক হয়তো খুব কমই পাওয়া যাবে। চা হচ্ছে খুবই জনপ্রিয় একটি পানিয়।বাংলাদেশের মতো জনবহুল পূর্ণ দেশে রয়েছে গলিতে গলিতে চায়ের দোকান। 


সাধারণত এর কারণ হচ্ছে একাটাই এদেশের মানুষ খুব চা পছন্দ করে থাকে।তাই আপনি চাইলে একটি চায়ের দোকান দিতে পারেন অল্প টাকা পুজির মধ্যে। অল্প পুজিতে লাভজনক ব্যবসা রয়েছে এই ব্যবসাটি হচ্ছে সবথেকে জনপ্রিয় একটি ব্যবসা।


৫.বেকিং এর ব্যবসা করতে পারেন 


কেক বা পেস্ট্রি আমরা সবাই পছন্দ করে থাকি। সুস্বাদু একটি খাবার হয় এটি প্রায় সাধারণত আমাদের বিকালের নাস্তায় থাকে। যারা সাধারণত বেকিং ভালো পারেন তারা চাইলে ঘরে বসেই এই কাজটি করতে পারেন। এই ব্যবসাটি হলো সম্পূর্ণ রিক্স ফিরি একটি ব্যবসা এবং এতে টাকা নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনাও নেই।



বর্তমানে কাস্টমাইজ কেকের চাহিদা রয়েছে প্রচুর। তাই আপনি যদি এই ক্ষেত্রে ভাল সাড়া পান তাহলে পছন্দের একটি দোকান নিয়ে শুরু করে দিন এই ব্যবসা। সাধারণত এই ব্যবসায় মূলধন অনেক কম লাগে এবং লাভও অনেক বেশি হয়।


৬.ঘরে বসে খাবার তৈরির ব্যবসা 


বর্তমানে আমরা যে সময়টাতে বসবাস করছি এই সময়টাতে অধিকাংশ মানুষই কর্মজীবী। নারী পুরুষ সকলেই এখন বাইরে কাজ করে থাকেন যার ফলে তারা বাসায় খাবার তৈরীর সময় পান না ঠিকমত। তাই তারা কিছু কিছু ক্ষেত্রে বাইরে থেকে খাবার অর্ডার দিয়ে থাকে। 



তাই আপনি যদি ঘরে বসে রুচিশীল সব খাবার তৈরি করতে পারেন তাহলে আপনি এই ক্ষেত্রে লাভবান হতে পারেন। ভাল রান্না করতে পারাটা হলো একটি শিল্প। আপনি এই গুণ কে কাজে লাগিয়ে খুব সহজেই ভালো পরিমাণে টাকা উপার্জন করতে পারবেন। আপনি চাইলে এক্ষেত্রে একটি নির্দিষ্ট মেনু তৈরি করে সেই মেনুটি সবার কাছে পৌঁছে দিয়ে অর্থ উপার্জন করতে পারেন। 


৭.হারবাল প্রোডাক্ট বিক্রির ব্যবসা 


রূপচর্চা সাধারণত নারী-পুরুষ সকলের করে থাকে। কর্মব্যস্ত জীবনে কিছু কিছু সময় আমাদের খামখেয়ালির জন্য তোকে এবং চুলের বিভিন্ন ধরনের সমস্যা হয়ে থাকে। সে ক্ষেত্রে আপনি চাইলে হারবাল প্রোডাক্ট বিক্রি করতে পারেন। 


হারবাল প্রোডাক্ট উৎপাদন করে বিক্রি করা হতে পারে অল্প টাকায় একটি লাভজনক ব্যবসা। বর্তমান সময়ে কেমিক্যাল প্রোডাক্ট এর যুগে সবাই প্রাকৃতিক একটি ভালো উপাদান খুঁজে থাকে। তাই আপনি যদি সঠিক পণ্য মানুষের কাছে দিতে পারেন তাহলে এই ক্ষেত্রে আপনাকে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হবে না। 


৮.অনলাইনে ফুল এবং চকলেটের ব্যবসা 


বর্তমানে ফুল এবং চকলেট পছন্দ করেন না এমন লোক হয়তো খুব কম খুঁজে পাওয়া যাবে।তাছারা কাউকে গিফট দেয়ার জন্য এই দুইটি হল সবথেকে উত্তম বস্তু। 


বিশেষ কিছু দিনে এই ধরনের গিফট কমবেশি সকলেই পছন্দ করে থাকেন। তাই আপনি চাইলে বিভিন্ন আকর্ষণীয় বক্স ফ্লাওয়ার বুকে ফুলের ঝুড়ি তৈরি করে খুব সহজেই মানুষের কাছে পৌছে দিতে পারেন।


সাধারণত বর্তমানে মানুষ এতটাই ব্যস্ত থাকে তারা বাইরে গিয়ে এসব গিফট কেনা অনেক অপছন্দ করে। তাই আপনি চাইলে এসব গিফট বিশেষ বিশেষ দিনে মানুষের বাড়ি পৌঁছে দিতে পারেন বা অনলাইনের মাধ্যমে এটি করতে পারেন। যা সাধারণত কম পুঁজিতে ভালো একটি ব্যবসা আইডিয়া।


৯.মাছ চাষের ব্যবসা 


মাছ আমাদের সকলের পছন্দ। তাই মৎস্য চাষ হতে পারে  আপনার জন্য কম পুঁজিতে ব্যবসা শুরু করার ভালো একটি ব্যবসা আইডিয়া। আপনার নিজের যদি একটি পুকুর থাকে তাহলে খুব কম টাকায় আপনি এই ব্যবসাটি শুরু করতে পারবেন। বর্তমানে বাংলাদেশের অনেক তরুণ এই ব্যবসার মাধ্যমে নিজেদেরকে সফল ব্যবসায়ী তে পরিণত করেছে।তাই আপনি চাইলে অল্প পরিসরে এই ব্যবসাটি করতে পারেন। 


১০.অনলাইন টেইলারিং ব্যবসা 


সাধারণত কাপড় কেনার পর সেটা পছন্দ মত পোশাক তৈরি করার জন্য আমাদেরকে অনেক ঝামেলায় পড়তে হয়। আর এই ঝামেলার দূর করার জন্য অনলাইন টেইলারিং হচ্ছে একটি দারুন আইডিয়া। এই কাজটি সাধারণত ঘরে বসেই করা সম্ভব। 


বর্তমানে যেহেতু অনেকেই অনলাইনের মাধ্যমে কেনাকাটা নির্ভরশীল তাই এক্ষেত্রে কাপড় বিক্রির পাশাপাশি টেইলারিং এর ব্যবসা করলে ভালো লাভবান হওয়া সম্ভব। যা সাধারণত অল্প মূলধনের মাধ্যমে আপনি করতে পারবেন। 


আমাদের শেষ কথা 


আপনি যে ব্যবসায়ী করুন না কেন অবশ্যই আপনার ভেতর আত্মবিশ্বাস এবং কঠোর পরিশ্রম করার এই মনোভাব  থাকতে হবে। কেননা কঠোর পরিশ্রম ও আত্মবিশ্বাস যেকোনো কোন ব্যবসায় সফলতা নিয়ে আসে।


আমি আজকে এই পোস্টে আপনাদের সাথে অল্প টাকায় সেরা দশটি লাভজনক ব্যবসা সম্পর্কে আলোচনা করেছি। আশা করি আপনারা যারা আমাদের সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়েছেন তারা অবশ্যই বুঝতে পেরেছেন। আর কেউ যদি কোন বিষয় বুঝতে না পারেন তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করে আমাদেরকে জানাবেন। ধন্যবাদ। 


আরো দেখুন




একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)
নবীনতর পূর্বতন