ইমু খোলার নিয়ম মাত্র ২ মিনিটে



আমরা অনেকেই এক স্থান থেকে অন্যস্থানে ভিডিও কলে কথা বলার জন্য ইমু ব্যবহার করে থাকি।কিন্তু আমাদের মধ্যে অনেকেই ইমু খোলার নিয়মাবলী বা ইমু খোলার নিয়ম সম্পর্কে জানিনা। তাই আজকের পোষ্টের মাধ্যমে আমি আপনাদেরকে শিখিয়ে দেব কিভাবে খুব সহজে imo account খুলতে পারবেন।



আমাদের দেশে ইমো অ্যাপটি খুবই জনপ্রিয়।দেশ থেকে শুরু করে বিদেশে কথা বলার জন্য ইমু অ্যাপটি ব্যবহার করা হয়ে থাক। গবেষণায় দেখা গিয়েছে বাংলাদেশের ৮০ শতাংশ স্মার্টফোন ব্যবহারকারীর ফোনে  ইমো অ্যাকাউন্ট রয়েছে। ইমু একাউন্ট এর মাধ্যমে বা ইমো অ্যাপ এর মাধ্যমে বিশ্বের যেকোন স্থানে কথা বলা যায়।



তাই যারা মোবাইলে ইমু অ্যাপটি ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে চান তাদের অবশ্যই ইমু খোলার নিয়ম সম্পর্কে জানা জরুরী। তাই তারা চাইলে আজকের পোস্টটি পড়ে সঠিকভাবে ইমু একাউন্ট খোলার নিয়ম সম্পর্কে জানতে পারেন। তাহলে চলুন দেরী না করে জেনে নেওয়া যাক:-



অন্য পোস্টঃইমু নাম্বার দেখার উপায় 

ইমু খোলার নিয়মাবলী


ইমু অ্যাপটি খোলার আগে অবশ্যই গুগল প্লে স্টোর থেকে imo download করে নিতে হবে। এই অ্যাপটি সম্পূর্ন ফ্রি একটি অ্যাপস কোন ধরনের চার্জ ছাড়াই গুগল প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করা যাবে। গুগল প্লে স্টোরে আপনারা ইমো অ্যাপ এর অনেকগুলো ভার্সন পেয়ে যাবেন। যেমন imo beta,নরমাল imo,imo lite,imo hd এগুলোর মধ্যে থেকে আপনি নরমাল imo অ্যাপটি ডাউনলোড করে নিবেন।



এই যে সকল অ্যাপ গুলো গুগল প্লে স্টোরে দেখতে পাচ্ছেন সব অ্যাপ গুলোর মাধ্যমে ভিডিও এবং অডিও কলে কথা বলা যাবে এবং অন্যান্য যেসকল কাজগুলো ইমু ব্যবহার করে করা যেত সেগুলো করা যাবে।আপনাদের যদি ডাউনলোড করতে অসুবিধা হয়ে থাকে তাহলে নিচের লিংক থেকে সরাসরি অরজিনাল ইমু অ্যাপটি ডাউনলোড করে নিতে পারেন।


https://play.google.com/store/apps/details?id=com.imo.android.imoim

ইমু অ্যাপটি ডাউনলোড করা হয়ে গেলে এবার আপনাকে ইমু একাউন্ট খোলার নিয়ম সম্পর্কে জানতে হবে বা ইমুতে একাউন্ট তৈরি করতে হবে।




 




ইমু একাউন্ট খোলার নিয়ম 


ইমু একাউন্ট খোলার নিয়ম খুবই সোজা যে কেউ চাইলে এটি মাত্র 2 মিনিটে করতে পারবেন। নিচে আপনাদেরকে ধাপে ধাপে দেখানো হলো কিভাবে খুব সহজেই ইমু একাউন্ট খোলা যায়:-



ধাপ ১ঃগুগল প্লে স্টোর থেকে অ্যাপ ডাউনলোড করা হয়ে গেলে এবার ওপেন করতে হবে।


ইমু খোলার নিয়ম



এ্যাপটি চালু করার সময় ফোনের পারমিশন চাইতে পারে আপনারা এই ক্ষেত্রে allow বাটনে ক্লিক করবেন।


ইমু খোলার নিয়ম



তারপরে আপনার মোবাইলের নাম্বারটা দিতে হবে অর্থাৎ যেই নাম্বারে ইমু একাউন্ট খুলতে চান। এই ক্ষেত্রে অনেকেই ভুল করে থাকে সেটি হচ্ছে প্রথমেই জিরো দিয়ে থাকে।


ইমু খোলার নিয়ম



আপনার নাম্বারটির জিরো বাদ দিয়ে পরবর্তী সংখ্যার নাম্বারটি প্রদান করবেন।আর আপনি যদি বাংলাদেশ বাদে অন্য কোন দেশ থেকে ইমু একাউন্ট খুলতে চান তাহলে যে দেশে অবস্থান করছেন সেই দেশের নাম সিলেক্ট করে সেই দেশের নাম্বার দিয়ে ইমু একাউন্ট খুলতে পারেন। 



নাম্বার বসানো হয়ে গেলে এবার আপনাদেরকে ডানপাশের নীল কালারের টিক চিহ্নতে ক্লিক করে okay বাটন প্রেস করতে হবে । 



ধাপ ২ঃআপনার মোবাইল নাম্বারটি সঠিকভাবে দেওয়ার পর মোবাইল নাম্বার ভেরিফিকেশন করার জন্য ইমু কোম্পানি থেকে আপনার নাম্বারে একটি এসএমএস দেওয়া হবে।


ইমু খোলার নিয়ম



অর্থাৎ এই এসএমএসে একটি কোড নাম্বার থাকবে কোড নাম্বারটি কপি করে আপনাকে এই ঘরটিতে প্রদান করতে হবে। 



আপনার সিমটি যদি মোবাইলে না থেকে থাকে হোয়াট্সঅ্যাপ অন্য মোবাইলে থেকে থাকে তাহলে সেই মোবাইলে একটি কোড যাবে সেই কোডটি উক্ত স্থানে বসাতে হবে।আর যদি নাম্বারটি আপনার যে মোবাইলে ইমু একাউন্ট খুলছেন সেই মোবাইলে থেকে থাকে তাহলে অটোমেটিক ভেরিফিকেশন হয়ে যাবে। 



ধাপ ৩ঃসিম নাম্বার ভেরিফিকেশন হয়ে যাওয়ার পর এবার আপনি ইমু নামটি কি দিতে চান সেটি সিলেক্ট করতে হবে।এখানে আপনারা চাইলে পুরো নামটি বাংলা অথবা ইংরেজিতে লিখতে পারবেন।নাম দেওয়া হয়ে গেলে ডানপাশের উপরের নীল কালারের done লেখার উপর ক্লিক করতে হবে। ক্লিক করার সাথে সাথে আপনার কেউ একাউন্টে চালু হয়ে যাবে এবং ইমু একাউন্ট খোলার সমস্ত কার্যক্রম শেষ হয়ে যাবে। আপনার ফোনে সেভ করা যত নাম্বার রয়েছে অর্থাৎ সেভ করা নাম্বার এর মধ্যে যত ইমু ব্যবহারকারী রয়েছে সবাই আপনার ইমুতে চলে আসবে।



অন্য পোস্টঃল্যাপটপে ওয়াইফাই চালু করার নিয়ম

পুরনো ইমো একাউন্ট খোলার নিয়ম 


অনেক সময় মোবাইল থেকে ইমু ডিলিট হয়ে অনেকেই চিন্তায় পড়ে থাকেন।অর্থাৎ তারা নিজেদের পুরনো ইমু একাউন্টটি ফিরিয়ে আনতে চান। যে মোবাইলে পুরনো ইমু একাউন্ট টি ছিল সেই মোবাইলে আবার আপনাকে ইমু ডাউনলোড করতে হবে এবং যে নাম্বার দিয়ে ইমু একাউন্ট খোলা ছিল সে নাম্বারটি প্রদান করলে আপনার আগের ইমু একাউন্ট চলে আসবে। এভাবে যে কোন ব্যক্তি খুব সহজেই চাইলে পুরনো একাউন্ট ফিরিয়ে আনতে পারবেন।



আইফোনে ইমু খোলার নিয়ম


আইফোনের অ্যাপ স্টোরে যে imo hd অ্যাপটি রয়েছে সেটি শুধুমাত্র united states এর নাম্বারের মাধ্যমে খোলা যায়। তাই যারা বাংলাদেশি নাম্বার থেকে আইফোনে ইমু খুলতে চান তাদের অবশ্যই জেনারেল ইমুটি ডাউনলোড করতে হবে।


সর্বপ্রথম আপনাকে নিজেরাই ফোনের লোকেশন অপসনটা অফ করে দিতে হবে। এর জন্য আপনারা সরাসরি সেটিং-এ গিয়ে প্রাইভেসি অপশন থেকে লোকেশন অফ করে দিবেন। এর নিচে share location নামে আরেকটি অপশন থাকবে এটি যদি অন হয়ে থাকে তাহলে এটিও অফ করে দিতে হবে।



তারপরে আপনাদেরকে অ্যাপল আইডি চেঞ্জ করতে হবে তার জন্য সরাসরি Setting এ চলে যেতে হবে।তারপরে অ্যাপেল আইডির প্রোফাইলে সরাসরি ক্লিক করতে হবে। এবার নতুন আরেকটি পেজ ওপেন হবে এবং এখানে দেখতে পারবেন tunes and app store নামের একটি অপশন রয়েছে সেটি চালু করতে হবে।



উপরে দেখতে পারবেন আপনার অ্যাপেল আইডি টা শো হচ্ছে এখান থেকে সরাসরি অ্যাপেল আইডি তে ক্লিক করতে হবে। তারপরে আপনার সামনে অনেক অপশন চলে আসবে এখান থেকে view apple id তে ক্লিক করতে হবে।



ক্লিক করার সাথে সাথে একাউন্ট সেটিংস পেজে নিয়ে যাবে সেখান থেকে Country/Region অপশনে ক্লিক করতে হবে। তারপর Change country or region এ ক্লিক করলে আপনার সামনে অনেকগুলো দেশের নাম চলে আসবে।তখন দেখতে পারবেন আপনার সামনে অনেক কয়েকটি দেশে চলে আসবে এখান থেকে united kingdom সিলেক্ট করতে হবে। সিলেক্ট করার পর উপরে দেখতে পারবেন agree লেখা আছে সেখানে ক্লিক করে দিতে হবে।


তারপরে আপনাদেরকে নতুন একটি সেটিং পেজে নিয়ে যাওয়া হবে এবং এখান থেকে পেমেন্ট অপশন চাইবে যেটাকে none করে দিতে হবে। তারপরে নিচে একটি ফর্ম থাকবে সেটা সুন্দর করে ফিলাপ করতে হবে। তারপরে নিচের এড্রেসটি সেম টু সেম বসাবেন।



Country: United kingdom

Street: 73 Park Terrace

City: Gelly

Zip: SA668SL

Phone: 070 32769370


তারপরে উপরে next বাটনে ক্লিক করবেন। বাটনটিতে ক্লিক করার পরপরই আপনার অ্যাপেল আইডি চেঞ্জ হয়ে যাবে। এবার আপনাকে অ্যাপ স্টোরে চলে যেতে হবে এবং তার আগে আপনার ফোনটি অফ করে আবার অন করতে হবে। ফোনটি অফ করে অন করার পর অ্যাপ স্টোরে চলে যাবেন এবং সেখানে imo লিখে সার্চ করলে জেনারেল ইমু চলে আসবে। তারপরে আপনারা চাইলে বাংলাদেশী নাম্বার দিয়ে ইমু চালু করতে পারবেন। 



অন্য পোস্ট:স্বাধীন ওয়াইফাই ব্যবসা করে লাখপতি হওয়ার উপায়


শেষ কথা, ইমু খোলার নিয়ম বা কিভাবে খুব সহজে অ্যান্ড্রয়েড ফোন ব্যবহার করেই ইমু খোলা যায় আশা করি আজকের পোস্টটি পড়ার মাধ্যমে সেই বিষয়ে পরিপূর্ণ ধারণা পেয়েছেন। তাই যারা ইমু একাউন্ট খুলতে জানেননা তারা উপরে দেওয়া পদ্ধতি অবলম্বন করে খুব সহজেই ইমু একাউন্ট খুলতে পারবেন। আর কোন বিষয় যদি না বুঝে থাকেন তাহলে সরাসরি নিচে কমেন্ট করে জানাতে পারেন আপনার প্রশ্নটির খুবই দ্রুত সময়ের মধ্যে উত্তর দেওয়া হবে। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)
নবীনতর পূর্বতন

Musik

Bisnis