জেনে নিন সেরা ১০ টি ওয়ার্ডপ্রেস থিম সম্পর্কে

আপনি নিজের জন্য একটি সুন্দর ব্লগ বা ওয়েবসাইট বানাতে চান অথবা আপনি আপনার ক্লায়েন্টের জন্য প্রফেশনাল ভাবে কোন ওয়েবসাইট বানাতে চান, উদ্দেশ্য সাধারণত আপনার যেটাই হোক ওয়ার্ডপ্রেস থিম দিয়ে আপনি খুব কম সময়ে অতি সহজে আপনি আপনার চাহিদা মোতাবেক সুন্দর একটি ওয়েবসাইট তৈরি বা বানাতে পারবেন। তাছাড়া যারা সাধারণত ওয়ার্ডপ্রেস নিয়ে কাজ করে থাকেন তাদের কাজকে আরও সহজ ও সুন্দর করার জন্য একটি থিম এর প্রয়োজন হয়ে থাকে। 



একটি ওয়েবসাইট বা ওয়েব হচ্ছে আপনার ঘরের মতো। তাই এসব ক্ষেত্রে বড় বড় ওয়েবসাইটগুলো তাদের প্রফেশনাল চেহারা আনতে এসব প্রোজেক্টের ক্ষেত্রে প্রচুর টাকা বিনিয়োগ করে থাকে।   



কেননা আপনার ওয়েবসাইটের চেহারা যদি ডায়নামিক হয় তাহলে অবশ্যই ভিজিটর আপনার সাইটে থাকতে পছন্দ করবে। আর ভিজিটরকে ওয়েবসাইটের প্রাণ বলা হয়ে থাকে।



আর ওয়েবসাইটের ভিজিটর ধরে রাখতে হলে অবশ্যই আপনার সাইটের ডিজাইন আকর্ষণীয় বা আপনার সাইটটির চেহারা সুন্দর হওয়া চাই। আজকের আর্টিকেলে আমি আপনাদের সাথে আলোচনা করবো সেরা ১০ টি ওয়ার্ডপ্রেস থিম সম্পর্কে যেসব থিম গুলো ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি আপনার ওয়েবসাইটটি কে ডায়নামিক ভাবে গড়ে তুলতে পারবেন।তাহলে চলুন প্রথমে জেনে নেয়া যাক ওয়ার্ডপ্রেস থিম কি?



ওয়ার্ডপ্রেস থিম কি 


ওয়ার্ডপ্রেস থিম সাধারণত অনেকগুলো ফাইল ব্যবহার করে তৈরি হয়, সেগুলোর সম্বনয়ে একটি ওয়ার্ডপ্রেস সাইটের ব্যবহূত থিমগুলো ফুটে ওঠে। সহজ কথায় বলতে গেলে, ওয়ার্ডপ্রেস থিম হলো কতগুলো ফাইল এর সমষ্টি যা সাধারণত একসাথে কাজ করে একটি গ্রাফিক্যাল ডিজাইন তৈরি করে থাকে তাকেই ওয়ার্ডপ্রেস থিম বলা হয়ে থাকে। 



ওয়ার্ডপ্রেস থিমের উপর নির্ভর করে থাকে সাইটটির সাইডবার, মেনুসহ আরো অনেক কিছুই। আর এই থিমগুলো একটি ওয়েবসাইট কিভাবে প্রদর্শন করা হবে তা নির্দেশ করে। ওয়ার্ডপ্রেস থিমের ফাইলগুলোকে টেমপ্লেট ফাইল বলা হয়ে থাকে।আপনার ওয়েবসাইটকে আকর্ষণীয়ভাবে আপনি তুলে ধরতে পারবেন ভিজিটরদের সামনে একটি সুন্দর থিম এর মাধ্যমে। তাহলে চলুন দেরী না করে জেনে নেয়া যাক সেরা ১০ টি ওয়ার্ডপ্রেস থিম সম্পর্কেঃ


ওয়ার্ডপ্রেস থিম কি? এবং জেনে নিন সেরা ১০ টি ওয়ার্ডপ্রেস থিম সম্পর্কে


১.Education Hub


Education Hub হল সুন্দর,আকর্ষণীয় এবং রেস্পন্সিভ একটি ওয়ার্ডপ্রেস থিম। এই থিমটি সাধারনত স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় বা অন্যান্য শিক্ষাগত কোন কাজের জন্য যেসব ওয়েবসাইটগুলো তৈরি করা হয় সেই ওয়েবসাইট গুলোর জন্যে এই থিমটি দারুন একটি কার্যকারী থিম। কিন্তু একটি কথা এই থিম শুধুমাত্র শিক্ষণীয় বিষয় এর জন্য তৈরি করা হয়নি। এটিকে আপনারা খুব ভালোভাবে ব্যবসায়িক কাজেও যদি চান ব্যবহার করতে পারেন।



এই থিমটি অধিকাংশ ওয়েবসাইটে ব্যবহার করার জন্য যোগ্য একটি থিম। আপনি এই থিমের লেআউট থেকে এটিকে ইচ্ছেমতো কাস্টমাইজ করতে পারবেন। আর এই থিমের সেটিং অত্যন্ত সহজ এবং শক্তিশালী অপশন প্যানেল দ্বারা নিয়ন্ত্রিত। Education Hub থিম থিম টি আপনার ওয়েবসাইটিকে সহজ এবং প্রফেশনাল করে গড়ে তুলতে সাহায্য করবে। শিক্ষাগত বা অফিশিয়াল যেকোনো কাজে আপনারা চাইলে এই থিমকে ব্লগ থিম হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। 



আপনি এই আকর্ষণীয় থিমটি Themeplace.com থেকে খুবই সুলভ মূল্যে কিনতে পারবেন। লাইসেন্স কি সহ  আপনি এই থিমটি ৫৯ ডলারের মাধ্যমে এই থিমটি এখান থেকে ক্রয় করতে পারবেন। আপনি এখান থেকে তিনটি কিনে কোন প্রকার ঝামেলা ছাড়াই আপনার ওয়েবসাইটে সুন্দরভাবে কাস্টমাইজ করতে পারবেন। 



২.Estory Theme



Estore Theme বিশেষভাবে  woocommarce প্ল্যাটফর্মের জন্য নির্মিত একটি বিনামূল্যে পাওয়া ওয়ার্ডপ্রেস থিম। Estore Theme এর সাথে আপনারই কমার্স স্টোর এর সংযোগ করা খুবই সহজ। তাছাড়াও এই থিমটি খুবই সহজে সুন্দরভাবে কাস্টমাইজ করা যায়। এই তিনটি কে সাধারণত ই-কমার্স এর জন্য তৈরি করা হয়ে থাকলেও গ্রাহক যদি মনে করেন এই থিমটি তাদের ইচ্ছেমতো কাস্টমাইজ করে তারা তাদের ব্লগে ব্যবহার করতে পারেন। 


এই থিমটিতে আপনি যেকোন ধরনের টুল এবং প্লাগইন খুব সহজেই ইন্সটল করে নিতে পারবেন।এই থিমটি ই-কমার্স ওয়েবসাইট এর জন্য সুন্দর এবং উপযোগী একটি থিম।  তাই যারা সাধারণত ই-কমার্স ওয়েবসাইট তৈরি করতে চান তারা এই থিমটি খুব সহজে ডাউনলোড করে আপনি আপনার সাইটে ব্যবহার করতে পারেন। এই থিমটি আপনি যেকোনো সাইট থেকে ফ্রী ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। 




৩.Zimple Lite



Zimple Lite খুবই আকর্ষণীয়, সুন্দর এবং অসাধারণ একটি ওয়ার্ডপ্রেস থিম। এই থিমটি কে সাধারণত বিজ্ঞাপন প্রদর্শন এবং পেজ স্পিড এর জন্য খুবই ভালভাবে কাস্টমাইজ করা হয়েছে। হোম পোস্ট প্রদর্শন এবং একটি আকর্ষণীয় স্লাইডবার এটির ডিজাইনটাকে শতভাগ ইউজার ফ্রেন্ডলি হিসেবে করে তুলেছে। পুরোপুরি বিজ্ঞাপন বান্ধব একটি থিম হাওয়াই এর মাধ্যমে আপনি আপনার ব্লগ থেকে বিজ্ঞাপন দেখিয়ে প্রচুর পরিমাণ টাকা আয় করতে পারবেন।থিমটি দিয়ে আপনি ব্যক্তিগত ব্লগ, ফ্যাশন বা লাইফস্টাইল বিষয়ক ওয়েবসাইট যদি তৈরি করতে পারেন তাহলে আপনি এর থেকে অবশ্যই ভাল ফলাফল পাবেন। 



আপনি চমৎকার এই থিমটি themeforest ওয়েবসাইটের মাধ্যমে পেয়ে যাবেন আপনি যদি পেইড ভার্সন নেন তাহলে আপনার এটি ওখান থেকে নিতে খরচ করতে হবে ২০ ডলার। আপনি এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে থিমটি নির্ভয়ে ক্রয় করে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটে আপনি ব্যবহার করতে পারেন। 



৪.News paperX


এই থিমটির কথা না বললেই নয়। News paperX থিমটি হলো মূলত সংবাদ,ম্যাগাজিন ও ব্লগের জন্য খুবই আকর্ষণীয় এবং মনোরম একটি ওয়ার্ডপ্রেস থিম। এই থিমটা কে ডিজাইন করা হয়েছে বুটস্ট্রাপ দ্বারা তাই সাধারণত এটি কাস্টমাইজ করাও খুব সহজ। আপনি যদি চান আপনার ব্লগে এসে ভিজিটর অনেকক্ষণ আপনার লেখাগুলো পড়বে তাহলে আপনি এই থিমটি ব্যবহার করতে পারেন। 


তাছাড়া আপনি যদি মনে করেন আপনার হোমপেজে প্রচুর পরিমানের টেক্সট রাখবেন তাহলে এই থিমটি হতে পারে আপনার জন্য আদর্শ। আর এছাড়াও এই থীমে প্রচুর পরিমাণে বিজ্ঞাপন সংযোগ রেখে ভালো পরিমানে আয় করা যাবে। বর্তমানে ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহারকারীদের কাছে এটি সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি থিম। 



আপনি এই থিমটি বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ওয়েবসাইট থিম বিক্রির জন্য themeforest ওয়েব সাইটটির মাধ্যমে পাবেন। আপনাকে এখান থেকে এই থিমটি ক্রয় করতে হলে খরচ করতে হবে ৫৯ ডলার। এখান থেকে থিমটি নিয়ে আপনি খুবই সহজে আপনার ওয়েবসাইটে সেটআপ করতে পারবেন। 




৫.Edigital Market


Edigital Market মোবাইল, ডেক্সটপ, প্লাগিন, ই-বুক, অডিও, সফটওয়্যার, ভিডিও, ফন্ট, ও অন্যান্য বিভিন্ন ধরনের ডিজিটাল পণ্য বিক্রি করার জন্য একটি বিনামূল্যের ওয়ার্ডপ্রেস থিম। থিমটি হল সুপার কাস্টমাইযোগ্য এবং ব্যবহারকারীদের সমস্ত স্তরের ডাটা সর্বাধিক নিশ্চিত করার জন্য ব্যবহার করা সহজ। আপনি অনলাইনে ছোট বা বড় যেকোনো পণ্য বিক্রি করতে চান না কেন আপনি এই থিমটি ব্যবহার করতে পারেন। 


ই-কমার্স ওয়েবসাইট এর জন্য এই থিমটি খুবই মনোরম এবং আকর্ষণীয়। যারা অনলাইনে ব্যবসা করে থাকেন বা যাদের কোন ওয়েবসাইট রয়েছে এবং তারা তাদের ওয়েবসাইটে পণ্য ক্রয়-বিক্রয় করতে চান তারা তাদের সাইটের জন্য এই থিমটি ব্যবহার করতে পারেন এই থিমটি আপনি বিনামূল্যে পাবেন এবং এটি অনেক রেস্পন্সিভ একটি থিম। 



৬.Hestia 


Hestia হল একটি উন্নত এবং হাই পাওয়ার ফুল  একটি বিজনেস থিম। আর এই থিমটি কে বিশেষভাবে পেজ স্পিড এর জন্য অপটিমাইজড করা হয়েছে। তাই আপনি যদি এই থিমটি ব্যবহার করতে চান তাহলে সাইটেরর স্পিড নিয়ে আপনার কোন রকম চিন্তা করার প্রয়োজন নেই। তাছাড়া এই থিমটি সম্পূর্ণ একটি এসইও ফ্রেন্ডলি থিম যার জন্য আপনাকে সাইট রেংক করানোর জন্য তেমন বেশি বেগ পেতে হয়না। 


আর থিমের কাস্টমাইজেশন অপশন টি সাধারণত সহজ হওয়ায় কোন কিছু পরিবর্তন, পরিমার্জন, সংযোজন এবং বিয়োজন করতে পারবেন খুবই অনায়াসে। যেকোনো ধরনের পণ্য ই-কমার্স ওয়েবসাইট এর জন্য Hestia একটি উপযুক্ত ওয়ার্ডপ্রেস থিম। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যে বিষয়টি সেটি হলো এই থিমে 'কনটেন্ট বিল্ডার' নামে একটা এক্সট্রা ফিচার এড করা হয়েছে যা আপনার পণ্যগুলো অর্ডার দেওয়া, পণ্যগুলো সাজানো আরো অনেক ধরনের সুবিধা পাবেন আপনি এই থিমের  মাধ্যমে। 




৭.Tyche Theam


এই থিমটি সাধারণত বিশেষভাবে পোশাক কেনাকাটা করার জন্য ডিজাইন করা হয়েছে। আর এতে রয়েছে চমৎকার টাইপোগ্রাফিক সুবিধা যার মাধ্যমে এটি গ্রাহকদের আকর্ষণ করতে সাহায্য করে। তাছাড়া এই থেমে আপনি প্রচুর পরিমাণে চমৎকার সব ফিচারের সুবিধা পাবেন। আর এই ফিচারগুলো দেখে আপনার একবারের জন্য মনে হবে না যে আপনি ফ্রি থিম ব্যবহার করছেন আপনার এটাই মনে হবে যে আপনি প্রিমিয়াম থিম ব্যবহার করছেন।


Tyche থিমটি স্বতন্ত্র woocommarce প্লাগিন এর সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ। আর এই থিমটির খুবই পরিচ্ছন্ন কোড এবং মসৃণ নকশা আরও জনপ্রিয় করে তুলেছে। যারা সাধারণত ব্যবসায়িক ওয়েবসাইট বানাতে চান তারা এই থিমটি ব্যবহার করতে পারেন তাদের জন্য এই থিমটি খুবই ভালো হবে। কেননা এটি ব্যবসায়িক ওয়েবসাইট বানানোর জন্য সেরা একটি ওয়ার্ডপ্রেস থিম। আর এই সিমটি আপনাকে টাকা দিয়ে কিনতেও হবে না। 



৮.Genarate Press


বর্তমানে এটি হলো সবচেয়ে দ্রুত এবং ফাস্টেস্ট একটি ওয়ার্ডপ্রেস থিম। এই থিমটি সাধারণত ডেভেলপ করা হয়েছে "Tom usborne" নামের ডেভেলপার এর মাধ্যমে। তাছাড়া এই থিমটির লোডিং স্পীড অনেক ভালো আর এখানে ব্যবহার করা হয়েছে ক্লিন এবং lightweight কোড। আর এটা সাধারণত প্রফেশনাল একটা ওয়ার্ডপ্রেস থিম যার সাইজ 30kb.



থিমটির ডিজাইন হচ্ছে অনেকটা সিম্পল যার মাধ্যমে আপনার ওয়েবসাইটের ভিজিটর রা খুব ভালোভাবে আপনার লেখাগুলো পড়তে পারবে। যেকোনো ধরনের ভালো মানের ওয়েবসাইট তৈরি করতে আপনি এই থিমটি ব্যবহার করতে পারেন।


এই থিমটিতে আপনি উন্নত এবং সহজ কিছু কাস্টমাইজ অপশন পাবেন। এই সুন্দর থিমটি আপনি চাইলে ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন তাছাড়া এর পেইড  থিম রয়েছে।এই থিমটি আপনার ওয়েবসাইটে ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি আপনার ওয়েবসাইটটিকে ডায়নামাইট হিসেবে গড়ে তুলতে পারবেন। 


৯.Astra


ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহারকারীদের কাছে সবচেয়ে প্রিয় একটি থিম হলো Astra।এই থিমটি সাধারণত দ্রুত ওয়েবসাইট লোড নেওয়ার কারণে খুবই জনপ্রিয় একটি থিম। আপনি এই থিমটি যদি ব্যবহার করেন তাহলে ১.৫ সেকেন্ডের মধ্যে আপনার সম্পূর্ণ ওয়েবসাইটটি লোড হয়ে যাবে। আপনি এই থিমটি ব্যবহার করার মাধ্যমে যেকোনো ধরনের প্রফেশনাল ওয়েব  সাইট গড়ে তুলে ফেলতে পারবেন। 


আপনি এখানে pre built website demo ব্যবহার করে যেকোনো ধরনের ডিজাইন না করে সুন্দর ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন।


১.Layout setting

২.Header oppson

৩.Blog and archives design

৪.clean and square code

৫.Seo optimized


তাছাড়া এই থেমে আরো অনেক ধরনের ফিচার রয়েছে আপনি যদি একবার এই থিম ব্যবহার করেন তাহলে আপনার আর কোন ধরনের ওয়ার্ডপ্রেস থিম ব্যবহার করতে মন বলবে না। এই থিমটির প্রিমিয়াম ভার্সন রয়েছে তবে আপনি চাইলে এর ফ্রি ভার্সন টাও ব্যবহার করতে পারেন। 


তবে আপনি যদি এই থিমের প্রিমিয়াম ভার্সন টা ব্যবহার করতে পারেন তাহলে আপনি বুঝতে পারবেন অন্য সিমের সাথে এই থিমের পার্থক্যটা। আপনি এর মাধ্যমে আপনার ওয়েবসাইটকে খুবই আকর্ষণীয় ভাবে ভিজিটর দের সামনে উপস্থাপন করতে পারবেন।


১০.Ocan Wp


ওয়ার্ডপ্রেস থিম গুলোর মধ্যে এই থিমটি আকর্ষণীয় এবং চমৎকার একটি থিম। এই থিমটি ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি আপনার ওয়েবসাইটকে প্রফেশনাল ভাবে ভিজিটরদের সামনে উপস্থাপন করতে পারবেন। এটা অনেক ফাস্ট ওয়ার্ডপ্রেস থিম এবং এর রয়েছে সুন্দর light weight সিস্টেম। এই থিমটি আপনি সম্পূর্ণ ফ্রি ব্যবহার করতে পারবেন আপনার ওয়েবসাইটে। এই থিমটি সাধারণত Astra এবং Ganerate press এর মত সুবিধা দেবে। 


আর এর মাধ্যমে আপনারা পাবেন বিভিন্ন Free built demo sites যেগুলো ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি নিমিষেই সুন্দর একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে ফেলতে পারবেন। 


আপনার ওয়েবসাইটের রেংকিং ফ্যাক্টর এর জন্য এই থিমটি খুবই চমৎকার এবং এর মাধ্যমে আপনার ওয়েবসাইট খুবই দ্রুত রেংক করবে। আর এই থিমটি ব্যবহারের মাধ্যমে আপনি মনে করলে যেকোন ধরনের ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন। যেমন:


১.Portfilo website

2.Blog

3.Ecommarce website

4.Company website

5.News site


যেকোনো ধরনের প্রফেশনাল ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন এই থিমটি ব্যবহার করে। 


আপনারা এই আধুনিক সুবিধাগুলো এই থিম এর মাধ্যমে পাবেন। তাই আপনি যদি এই তিনটি সঠিকভাবে কাস্টমাইজ করে আপনার ব্লগে ব্যবহার করতে পারেন তাহলে আপনার ব্লগটি খুবই আকর্ষণীয় দেখাবে যার মাধ্যমে আপনি আপনার ব্লগে কাঙ্খিত ভিজিটর ধরে রাখতে পারবেন। 


পরিশেষে, একটি সুন্দর থিম এর মাধ্যমে আপনি আপনার ওয়েবসাইটের ডিজাইন করতে পারবেন। আর আপনার ওয়েবসাইটের ডিজাইন যত ভালো হবে ততো আপনার সাইটটি আকর্ষণীয় মনে হবে ইউজারদের কাছে । আর ইউজারদের যদি আপনার সাইট ভালো লাগে তাহলে তারা নিয়মিত আপনার সাইট ভিজিট করবে এবং আপনার ব্লগ পড়বে। 


তাছাড়া আপনার লেখা যতই ভালো হয়ে থাকুক না কেন আপনার সাইটের ডিজাইন যদি ভালো না হয় তাহলে ভিজিটর আপনার সাইটে ঢুকে আপনার লেখা না পড়েই বেরিয়ে যাবে। তাই আপনার সাইটের ডিজাইন যদি প্রফেশনাল হয় তাহলে ভিজিটর সেখানে থাকতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করবে।



আর এর জন্য অবশ্যই আপনার দরকার হবে একটি ওয়ার্ডপ্রেস থিম। থিম এর মাধ্যমে আপনার সাইটের ডিজাইন এর কাজটা আরো অনেক সহজ হয়ে যায়। তাছাড়া সেখানে আপনি পাবেন নানা ধরনের উন্নত সব ফিচার যা আপনার সাইটকে আরো আকর্ষণীয় ও দর্শনীয় করে তোলে ইউজারদের কাছে। তাই দেরি না করে অবশ্যই আপনার ওয়েবসাইটের জন্য সেরা একটি থিম পছন্দ করুন এবং আপনার ওয়েবসাইটে সেটি কাস্টমাইজ করুন এবং আপনার সাইটকে প্রফেশনাল ভাবে গড়ে তুলুন।



একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)
নবীনতর পূর্বতন

Musik

Bisnis