ব্লুটুথ হেডফোন কি,ব্লুটুথ হেডফোন ব্যবহারের নিয়ম।কম দামে সেরা ৫টি ব্লুটুথ হেডফোন


বাংলাদেশে এখন অনেক ধরনের ব্লুটুথ হেডফোন দেখতে পাওয়া যায়। যত সময় যাচ্ছে তত ব্লুটুথ হেডফোনের চাহিদা যেন বৃদ্ধি পাচ্ছে। ব্লুটুথ হেডফোন গুলো ওয়ারলেস এর সাহায্যে খুব সহজেই শব্দ প্রদান করতে পারে। যার কারণে বাংলাদেশে অনেকেই ব্লুটুথ হেডফোনকে ওয়্যারলেস হেডফোন হিসেবে চিনে থাকেন। আজকের পোস্টটি পড়ার মাধ্যমে জানতে পারবেন ব্লুটুথ হেডফোন ব্যবহারের নিয়ম,কম দামের ভাল মানের ব্লুটুথ হেডফোন  বা ব্লুটুথ হেডফোন বাংলাদেশ প্রাইস সম্পর্কে। তাহলে চলুন দেরি না করে জেনে নেওয়া যাকঃ-


ব্লুটুথ হেডফোন কি 


ব্লুটুথ হেডফোন হল ব্লুটুথ টেকনোলজি এর উপর ভিত্তি করে তৈরিকৃত এমন একটি ডিভাইস যেটার মাধ্যমে বিভিন্ন কম্পিউটিং ডিভাইস যেমন - ল্যাপটপ, মোবাইল ফোন, পিসি থেকে সাউথ অথবা ভয়েস ডাটা তার বিহীন প্রক্রিয়ায় সঞ্চারিত করার যন্ত্র। বর্তমানে বাংলাদেশে অনেক ধরনের ব্লুটুথ হেডফোন দেখতে পাওয়া যাচ্ছে।




অন্য পোস্টঃমোবাইলের অরজিনাল ডিসপ্লে চেনার  উপায় 

ব্লুটুথ হেডফোন ব্যবহারের নিয়ম 



ব্লুটুথ হেডফোন কিভাবে ব্যবহার করতে হয় বা ব্লুটুথ হেডফোন কানেক্ট করার উপায় সম্পর্কে অবশ্যই সঠিক ধারণা থাকতে হবে। ব্লুটুথ হেডফোন চালু করার জন্য আমাদেরকে সর্বপ্রথম হেডফোনটিতে চার্জ দিয়ে নিতে হবে।হেডফোনটি যখন চার্জ হয়ে যাবে তারপরে ব্লুটুথ যুক্ত হেডফোনটি অন করে ফেলতে হবে। এক্ষেত্রে আপনাকে সরাসরি নিজের স্মার্টফোনের ব্লুটুথ অপশনে চলে যেতে হবে। তারপরে আপনার হেডফোনের যে নাম তার সাথে স্মার্টফোনে পেয়ার করতে হবে।পরবর্তীতে আপনার স্মার্টফোন ও হেডফোনের সংযোগ হয়ে গেলেই তখনই স্মার্টফোন বা বিভিন্ন মিডিয়া প্লেয়ার বা ইউটিউব এর মাধ্যমে গান বা সংবাদ যেকোনো ধরনের কিছু শুনতে পারবেন।


হেডফোন ব্লুটুথ দাম কত/ব্লুটুথ হেডফোন বাংলাদেশ প্রাইস


bluetooth headphone dam koto বা ভালো মানের ব্লুটুথ হেডফোন অনেকেই খুঁজে থাকেন। বর্তমান সময়ে বাজারে বেশ কিছু ভালো মানের ব্লুটুথ হেডফোন এসেছে যেগুলো ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনারা হেডফোন ব্যবহারের উন্নত সেবা পেতে পারেন। নিচে সেরা পাঁচটি ব্লুটুথ হেডফোন এর দাম সহ সুবিধা-অসুবিধা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হলোঃ-


১.Sony MDR-XB950BT Wireless Headphone


ব্লুটুথ হেডফোন কি, ব্লুটুথ হেডফোন ব্যবহারের নিয়ম।কম দামে সেরা ৫টি ব্লুটুথ হেডফোন



sony কোম্পানির কম দামে ভালো হেডফোনের মধ্যে mdr-xb950bt wireless ব্লুটুথ হেডফোনটি নিতে পারেন। হেডফোন ফ্রিকোয়েন্সি ক্ষমতা হচ্ছে 

20-20000Hz।তাছাড়া সনির এই হেডফোনটির অতিরিক্ত ফিচারের মধ্যে রয়েছে কেবল ছাড়াই স্মার্টফোনের সাথে সংযুক্ত করা যাবে, যোগাযোগের জন্য একটি অতিরিক্ত তারের প্রয়োজন নেই,মাত্র ২.৫ ঘণ্টার মধ্যে সম্পূর্ণ চার্জ হবে, একটানা একশ ঘন্টা চালানো যাবে, অতিরিক্ত আশপাশের শব্দ কমাতে মাইক্রোফোন ব্যবহার করা যাবে। বাংলাদেশের বাজারে অসাধারণ এই ব্লুটুথ হেডফোনটি ১৫০০ টাকার মধ্যেই পেয়ে যাবেন।



অন্য পোস্টঃকম দামে সেরা পাঁচটি ওয়ালটনের রুম হিটার

২.Awei A799BL Foldable Gaming Wireless Headphone


ব্লুটুথ হেডফোন কি, ব্লুটুথ হেডফোন ব্যবহারের নিয়ম।কম দামে সেরা ৫টি ব্লুটুথ হেডফোন



ভালো ব্লুটুথ হেডফোনের সন্ধান যারা করছেন তাদের জন্য awei এর ওয়ারলেস হেডফোনটি অসাধারণ হতে পারে। হেডফোনটি ব্যবহারে ১০০ ঘন্টা স্ট্যান্ডবাই টাইম,১০০ ঘন্টার টক টাইম, ১৪ ঘণ্টা মিউজিক প্লে টাইম পাবেন।তাছাড়া অসাধারণ এই হেডফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ৫০০০ মিলি এম্পিয়ারের ব্যাটারি। বাংলাদেশের বাজারে এই ব্লুটুথ হেডফোনটি আপনারা ২২০০ টাকার মধ্যেই পেয়ে যাবেন। 



৩.Awei T29p True Wireless Sport Earbud


Awei T29p True Wireless Sport Earbud



কম দামে ভালো ব্লুটুথ হেডফোনগুলোর মধ্যে এটি অন্যতম। এই হেডফোনটি ব্যবহার করে এক টানা চার ঘন্টা অডিও গান বা অডিও সাউন্ড শুনতে  পারবেন।যারা গেম খেলতে পছন্দ করে থাকেন তাদের জন্য এই হেডফোনটি অসাধারণ হতে পারে। কেননা এটি মূলত মোবাইল গেমিং অডিও অভিজ্ঞতা প্রদানের জন্য ডিজাইন করা হয়েছে। T29 Pro ব্লুটুথ ইয়ারবাডের ব্যাটারির ক্ষমতা 45mAh এবং এর চার্জিং বিন ক্ষমতা 500mAh যা সাধারণত মিউজিক প্লে ব্যাকের সময় বাড়াতে কাজ করে থাকে।



৪.Blitz Wolf BW-FYE13 In-Ear TWS with Dual Dynamic Earbud


Blitz Wolf BW-FYE13 In-Ear TWS with Dual Dynamic Earbud



বাজেট বেশি হয়ে থাকলে Earbud এর ব্লুটুথ হেডফোনটি নিতে পারেন। ৫.২ ফিচারের ব্লুটুথ হেডফোনটিতে রয়েছে ৫০০ এম্পিয়ার ব্যাটারি, একটানা ছয় ঘন্টা ব্যবহার করতে পারবেন,২ ঘন্টা চার্জ দিলেই হবে,ইউএসবি চার্জিং পোর্ট সুবিধা রয়েছে এবং ভলিউম কন্ট্রোল রয়েছে। বাংলাদেশ থেকে এই হেডফোনটি আপনারা ৪২৫০ টাকার মধ্যেই পেয়ে যাবেন। 



৫.Baseus Encok WM01 Plus True Wireless Earphones


ব্লুটুথ হেডফোন কি,ব্লুটুথ হেডফোন ব্যবহারের নিয়ম।কম দামে সেরা ৫টি ব্লুটুথ হেডফোন



ভালো মানের ব্লুটুথ হেডফোন কম বাজেটে কিনতে চাইলে এই হেডফোনটি কিনতে পারেন। Encok WM01 Plus মডেলের হেডফোনটির ফ্রিকোয়েন্সি ক্ষমতা হচ্ছে 20Hz-20KHz।হেডফোনটিতে রয়েছে ম্যাগনেটিক চার্জিং সুবিধা, টাইপ সি চার্জ ইন্টারফেস,চার্জিং কেসের ৮০০ এম্পিয়ার ব্যাটারী ক্ষমতা, প্রতিটি ইয়ারফোনের রয়েছে ৪০ এম্পিয়ার ব্যাটারী ক্ষমতা। ব্লুটুথ সংস্করণ ৫ ভার্সনের এই অসাধারণ হেডফোনটি বাংলাদেশের বাজারে ২০০০ টাকার মধ্যেই পেয়ে যাবেন। 



অন্য পোস্টঃঅরিজিনাল হেডফোন চেনার সহজ উপায় 


মিনি ব্লুটুথ হেডফোন দাম/মিনি ব্লুটুথ হেডফোন এর দাম কত


অনেকেই মিনি ব্লুটুথ হেডফোন কিনতে চান। কিন্তু বুঝে উঠতে পারেন না কোন ব্লুটুথ হেডফোনটি কিনলে ভালো হবে। আমি তাদেরকে মিনি ব্লুটুথ হেডফোনের মধ্যে i9s TWS white dual mini wireless 4.1 এটি কেনার জন্য সাজেস্ট করবো।মিনি হেডফোনগুলোর মধ্যে আমার দেখা চোখে HBQ ব্রান্ডের এই প্রোডাক্টটি একেবারে অসাধারণ। মিনি ব্লুটুথ হেডফোনটির ফ্রিকোয়েন্সি ক্ষমতা হচ্ছে 2.4GHz এবং এর আউটপুট শক্তি 30mW।হেডফোনটি আপনারা মাত্র ৫৫০ টাকার মধ্যে বাজারে কিনতে পেয়ে যাবেন। 



শাওমি ব্লুটুথ হেডফোন দাম 


বর্তমানে বাংলাদেশের বাজারে xiaomi কোম্পানির দারুন কিছু ব্লুটুথ হেডফোন দেখা যাচ্ছে। এই হেডফোনগুলো কাস্টমারদের কে অসাধারণ সার্ভিস দিচ্ছে। যদি শাওমি কোম্পানির ব্লুটুথ হেডফোন কিনতে চান তাহলে Haylou gts wireless Earphone এই ব্লুটুথ হেডফোনটি কিনতে পারেন।এই হেডফোনটি আপনারা মাত্র ১৯০০ টাকার মধ্যেই কিনতে পেয়ে যাবেন।




শেষ কথা, আশা করি আজকের পোস্টটি যারা পড়েছেন তারা কম দামে ভালো মানের হেডফোন বা ব্লুটুথ হেডফোন বাংলাদেশ প্রাইস কেমন এই সম্পর্কে মোটামুটি ধারণা পেয়েছেন। তারপরেও যদি কোন বিষয়ে সম্পর্কে কোন কিছু জানার থাকে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাতে পারেন। আপনার মূল্যবান প্রশ্নটির খুবই দ্রুত সময়ের মধ্যে উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করা হবে। ধন্যবাদ। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)
নবীনতর পূর্বতন

Musik

Bisnis