এটিএম বুথে টাকা জমা দেওয়ার নিয়ম খুব সহজেই

 

অনেক সময় এটিএম বুথের মাধ্যমে ব্যাংকে টাকা জমা দেওয়ার প্রয়োজন পড়ে।অর্থাৎ নিজের কাছে যখন নগদ অর্থ অনেক হয়ে যায় তখন আশেপাশে এটিএম বুথের মাধ্যমে টাকা জমা দেওয়া যায়।কিন্তু অনেকেই এটিএম বুথের মাধ্যমে টাকা জমা দেয়ার নিয়ম বা কিভাবে টাকা জমা দিতে হয় এই বিষয়ে জানেন না। তাই আজকের পোস্টে আলোচনা করা হয়েছে এটিএম বুথে টাকা জমা দেওয়ার উপায়, এটিএম বুথের মাধ্যমে টাকা জমা দিতে কি কি লাগে। 


এটিএম বুথে টাকা জমা দেওয়ার নিয়ম



যদি কখনো কার্ড ছাড়া টাকা জমা দিতে হয় তাহলে crm মেশিনের মাধ্যমে দিতে হবে।সকল এটিএম বুথে টাকা জমা দেওয়া যায় না। যেকোনো ব্যাংক একাউন্টে টাকা জমা দিতে হলে সর্বপ্রথম আপনাকে crm মেশিন যুক্ত এটিএম বুথ খুঁজে বের করতে হবে। তারপরে চাইলে টাকা জমা দেওয়া যাবে। অর্থাৎ crm মেশিন যুক্ত এটিএম বুথ ছাড়া কোনভাবেই ব্যাংক একাউন্টে টাকা জমা করা যায় না। তাহলে চলুন এবার জেনে নেওয়া যাক এটিএম কার্ড ছাড়া টাকা জমা দিতে কি কি লাগে?



ATM কার্ড ছাড়া টাকা জমা দিতে কি কি লাগে 


কোন গ্রাহক যদি চাই তাহলে এটিএম কার্ড ছাড়াও টাকা জমা দিতে পারবে। তবে এক্ষেত্রে গ্রাহককে অবশ্যই কিছু শর্তাদি অবলম্বন করে তারপর টাকা জমা দিতে হবে। 


➡️জমাকারী ব্যক্তির জাতীয় পরিচয় পত্র নাম্বার লাগবে। 


➡️মোবাইল নাম্বার প্রয়োজন হবে। 


➡️যে ব্যাংক একাউন্টে টাকা জমা দিতে হবে সেই একাউন্ট নাম্বার বা হিসাব নাম্বার লাগবে। 


অর্থাৎ এই ডকুমেন্ট গুলা থাকলে আপনারা এটিএম কার্ড ছাড়াও ব্যাংক একাউন্টে টাকা জমা করতে পারবেন। 



নিজের একাউন্টে এটিএম বুথে টাকা জমা দেওয়ার নিয়ম 


নিজের একাউন্টে যদি এটিএম বুথের মাধ্যমে টাকা জমা করতে চান তাহলে এক্ষেত্রে কি করতে হবে নিচে ধাপে ধাপে দেখানো হলো:-



Step 1: নিজের একাউন্টে এটিএম বুথের মাধ্যমে টাকা জমা করতে হলে প্রথমেই crm মেশিন যুক্ত এটিএম কার্ডটি প্রবেশ করাতে হবে। তারপরে পিন নাম্বার দিতে হবে এবং আপনার একাউন্টে প্রবেশ করতে হবে। 


Step 2ঃ একাউন্টে প্রবেশ করার পর তিনটি অপশন সামনে চলে আসবে। নিচের দিকে cash deposit নামক টাকা জমা দেওয়ার একটি অপশন দেখতে পারবেন। সেখানে সরাসরি ক্লিক করতে হবে। 


এটিএম বুথে টাকা জমা দেওয়ার নিয়ম




Step 3ঃতারপরে ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট দিতে হবে এখানে একসাথে সর্বোচ্চ ২০০ টি নোট পর্যন্ত দেওয়া যাবে। এখন crm মেশিনে যেখানে টাকা জমা দেওয়া হয় যেটাকে সংক্ষেপে cash tray বলা হয় সেখানে টাকাগুলো জমা দিতে হবে। তারপরে নিশ্চিত করুন বাটনে ক্লিক করতে হবে। 



এটিএম বুথে টাকা জমা দেওয়ার নিয়ম




Step 4ঃতারপরে আপনি যে cash tray তে টাকাগুলো জমা দিয়েছেন সেগুলো crm মেশিন গণনা করা শুরু করবে। এক্ষেত্রে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করা লাগতে পারে। তারপরে crm মেশিনের টাকা গণনা শেষ হয়ে গেলে কত টাকা জমা দিয়েছেন সেটার মোট এমাউন্ট দেখানো হবে। এক্ষেত্রে যদি সবকিছু ঠিকঠাক থেকে থাকে তাহলে পরবর্তীতে Confirm বাটনে ক্লিক করতে হবে। 



টাকা জমা দেওয়া শেষ হয়ে গেলে সামনের স্ক্রিনে Your Transaction was successful এই লেখাটি চলে আসবে। অর্থাৎ এটার মাধ্যমে বুঝে নিতে হবে যে আপনার লেনদেনটি সফল হয়েছে। 



Step 5ঃ সবশেষে crm মেশিন থেকে টাকা জমা দেওয়ার রশিদ ও এটিএম কার্ডটি সংগ্রহ করতে হবে। এভাবে খুব সহজেই নিজের ব্যাংক একাউন্টে এটিএম বুথের মাধ্যমে টাকা পাঠানো যাবে।



অন্য পোস্টঃ ল্যাপটপে বাংলা লেখার নিয়ম 

অন্যের একাউন্টে এটিএম বুথের মাধ্যমে টাকা জমা দেওয়ার নিয়ম 


বাংলাদেশের সকল ইসলামিক ব্যাংকের atm বুথ গুলোতে crm মেশিনের মাধ্যমে টাকা জমা ও উত্তোলন খুব সহজেই করা সম্ভব হচ্ছে। তাছাড়া এখন ডাচ-বাংলা ব্যাংকও এই সুবিধাটি চালু করেছে। নিচে ডাচ-বাংলা ব্যাংকে Atm বুথের টাকা জমা দেওয়ার নিয়ম তুলে ধরা হলো:-



ধাপ ১ঃ  সর্বপ্রথম এটিএম বুথ থেকে crm মেশিন থেকে cardless deposit বা কার্ড ছাড়া জমাদান বাটনে ক্লিক করতে হবে। তারপরে আপনার সামনে দুইটি অপশন চলে আসবে। Core Banking A/C” ও “Rocket A/C“.এখান থেকে আপনাদেরকে core banking a/c বাটনে ক্লিক করতে হবে। 



এটিএম বুথে টাকা জমা দেওয়ার নিয়ম




ধাপ ২ঃ এবার যার একাউন্টে টাকা জমা দিচ্ছেন তার জাতীয় পরিচয় পত্র নাম্বার বসিয়ে Correct বা সঠিক বাটনে ক্লিক করতে হবে। 



ধাপ ৩ঃ জাতীয় পরিচয় পত্র দেওয়া হয়ে গেলে সঠিক বাটনে ক্লিক করার পরে মোবাইল নাম্বার দেওয়ার অপশন চলে আসবে।মোবাইল নাম্বার দেওয়া হয়ে গেলে correct বা সঠিক বাটনে ক্লিক করতে হবে। 



ধাপ ৪ঃমোবাইল নাম্বার দিয়ে যখন সঠিক বাটনে ক্লিক করবেন তখন আপনার নাম্বারে একটি ওটিপি কোড যাবে।এবার সেই ওটিপি কোডটি বসিয়ে correct বাটনে ক্লিক করতে হবে।




ধাপ ৫ঃ তারপরে আপনি ডাচ-বাংলা ব্যাংকের যে একাউন্টে টাকা পাঠাতে চাচ্ছেন সেই অ্যাকাউন্ট নাম্বারটি দিতে হবে। অর্থাৎ ডাচ বাংলা ব্যাংকের ১৩ ডিজিটের একাউন্ট নাম্বারটি বসিয়ে Correct বাটনে ক্লিক করতে হবে। 



এটিএম বুথে টাকা জমা দেওয়ার নিয়ম




ধাপ ৬ঃ ক্লিক করা হয়ে গেলে এবার আপনার নাম ও ব্যাংক একাউন্ট নাম্বার দেখাবে।সবকিছু এখান থেকে ভালোভাবে দেখে নিতে হবে এবং যদি ঠিকঠাক থেকে থাকে তাহলে confirm বাটনে ক্লিক করতে হবে। 



ধাপ ৭ঃ তারপরে CRM মেশিনে থাকা টাকা জমা দেওয়ার বাক্সটি অটোমেটিক খুলে যাবে। খুলে যাওয়ার পর আপনার টাকাগুলো নিষেধ দেখানোর নিয়ম অনুযায়ী সুন্দরভাবে বসিয়ে নিয়ে জমা দিতে হবে। 



➡️ ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট দিতে হবে। 


➡️ একই সাথে সর্বোচ্চ ২০০ টি নোট এখানে দেওয়া যাবে। 


➡️টাকাগুলো দেয়ার সময় অবশ্যই সমানভাবে দিতে হবে যাতে করে কোন ভাবে বেকে না থাকে। অর্থাৎ টাকার কোনাগুলো সমান করে দিতে হবে। 



ধাপ ৮ঃ তারপরে আপনার সামনে কত টাকার কয়টি নোট দিয়েছেন তার মাধ্যমে কত টাকা হয়েছে সেটি দেখাবে। এখানে যদি আপনার টাকায় কোন সমস্যা থাকে তাহলে CRM মেশিন বাতিল বলে মনে করবে এবং আপনাকে বাতিল বাটনে ক্লিক করে পরবর্তীতে আবার ঠিক করে দিতে হবে।এবার আপনার সামনে দেখা যাবে মেশিন কত টাকা গ্রহণ করেছে তার বিবরণ সহ। সবকিছু যদি ঠিকঠাক থেকে থাকে তাহলে confirm বা নিশ্চিত করুন বাটনে ক্লিক করতে হবে। টাকা জমা দেওয়া শেষ হয়ে গেলে এটিএম বুথ থেকে একটি রশিদ পাবেন সেটা অবশ্যই সংগ্রহ করে রাখতে হবে। 



অন্য পোস্টঃ সায়েন্টিফিক ক্যালকুলেটর কিভাবে কাজ করে 

আমাদের শেষকথা


আশা করি আজকের পোস্টটি যারা বিস্তারিত মনোযোগ সহকারে পড়েছেন এটিএম বুথে টাকা জমা দেওয়ার নিয়ম বা কিভাবে ব্যাংক একাউন্টে এটিএম বুথের মাধ্যমে টাকা জমা করা যায় এই বিষয়ে পরিপূর্ণ ধারণা পেয়েছেন।তারপরেও যদি এই নিয়ে কোন ধরনের প্রশ্ন থেকে থাকেন তাহলে অবশ্যই কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে পারেন। ধন্যবাদ। 



Post a Comment (0)
Previous Post Next Post

Musik

Bisnis